ই-পেপার

শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের দায়ে মাদ্রাস শিক্ষকের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: November 30, 2021

বরগুনায় ৮ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মাদ্রাসা শিক্ষককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রদান করেছে আদালত। একই সাথে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ডাদেশ দেয়া হয়।

মঙ্গলবার বরগুনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান আসামির ‍উপস্থিতিতে এই দণ্ডাদেশ দিয়েছেন। দণ্ডিত শিক্ষক সাইফুল ইসলাম বরগুনা সদর উপজেলার সাহেবের হাওলা দাখিল মাদ্রাসার শারীরিক শিক্ষক।

এছাড়া মামলার অপর আসামি অভিযুক্ত সাইফুল ইসলামের ছোটভাইয়ের স্ত্রী রাশিদা বেগমকে মামলা থেকে খালাস দেয়া হয়েছে।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের পিপি আশ্রাফুল আলম এবং আসামি পক্ষ্যের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মামুন মোল্লা ও অলিউর রহমান সবুজ।

মামলার বিবরণে জানাযায়, ২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি সাহেবের হাওলা দাখিল মাদ্রাসায় শারীরিক শিক্ষক সাইফুর রহমান মাদ্রাসায় ৮ ম শ্রেনীর শিক্ষার্থীকে বাসায় ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে। রক্তাক্ত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে।

ঘটনার পর পরই আসামি পালিয়ে যাবার সময় ঘটনার রাতেই র‌্যাব-৮ সদস্যরা বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলা থেকে তাকে গ্রেফতার করে। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। মামলায় স্বক্ষগ্রহণ এবং শুনানী শেষে আসামির ‍উপস্থিতিতে আদালত ওই দণ্ডাদেশ দিয়েছেন।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন