ই-পেপার

বিজয় দিবস পালন করেনি বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক | আপডেট: December 18, 2021

বাংলাদেশ বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন করেছে সারাদেশ। বরিশালেও শ্রদ্ধা ভালোবসায় মহান বিজয় দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে নানা কর্মসূচির আয়োজন করে বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামজিক এবং সাংস্কৃতিক অঙ্গন। কিন্তু ব্যতিক্রম চিত্র দেখা গেছে বরিশাল উত্তর জেলা বিএনপিতে।

মহানগর ও দক্ষিণ জেলা বিজয় দিবসে বর্ণাঢ্য কর্মসূচি পালন করলেও দেখা মেলেনি উত্তর জেলার নেতাদের। পদবঞ্চিত এবং তৃনমূল নেতাদের দাবি সাংগঠনিক অদক্ষতা এবং ব্যর্থতার কারণেই জাতীয় দিবসে কর্মসূচি নিয়ে মাঠে নামতে পারেনি উত্তর জেলা বিএনপি।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ‘সম্প্রতি বরিশাল মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র। কমিটি ঘোষণার পর পরই বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে নিজেদের অস্তিত্ব এবং সাংগঠনিক যোগ্যতার জানান দেন মহানগর এবং দক্ষিণ জেলা বিএনপি। কিন্তু শুরু থেকেই অনেকটা নিস্কৃতায় ভুগছে উত্তর জেলা বিএনপি।

দলীয় নেতাকর্মীরা জানিয়েছেন, ‘উত্তর জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটি গঠন হয়েছে মিথ্যার ওপর ভর করে। এই কমিটিতে দেওয়ান মোহাম্মদ শহীদুল্লাহকে আহ্বায়ক এবং মিজানুর রহমান ওরফে মুকুলকে সদস্য সচিব করা হয়েছে। ওই কমিটিতে পূর্বে সাবেক সংসদ সদস্য মেজবাহ উদ্দিন ফরহাদ সভাপতি ও আকন কুদ্দুসুর রহমান সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

তাদের বাদ দিয়ে নতুন নেতাদের হাতে নেতৃত্ব দিলেও তৃনমূলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। তাদের অভিযোগ মিথ্যা তথ্য দিয়ে উত্তর জেলা বিএনপি’র পদ বাগিয়ে নিয়েছেন দুই সদস্য বিশিষ্ট আহ্বায়ক কমিটির একজন নেতা। এ নিয়ে কেন্দ্রে অভিযোগও দেয়া হয়েছে। সে নিয়ে দলীয় মহলে আলোচনার ঝড় বইছে। সেই আলোচনা শেষ না হতেই নতুন করে আলোচনায় এসেছেন উত্তর জেলা বিএনপি।

উত্তর জেলা বিএনপি’র একাধিক নেতাকর্মী বলেন, ‘বিজয় দিবস কোন রাজনৈতিক দিবস নয়। এটি দেশের জাতীয় দিবস। তাই আওয়ামী লীগের পাশাপাশি বরিশাল মহানগর এবং দক্ষিণ জেলা বিএনপি বড়ধরনের কর্মসূচি পালন করেছে। তারা শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন। এমনকি বর্ণাঢ্য র‌্যালিও করেছেন। কিন্তু উত্তর জেলা বিএনপি মহান এই দিবসটিতে কোন কর্মসূচি গ্রহণ করেননি।

দলের নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘উত্তর জেলা বিএনপি’র আহ্বায়ক কমিটি কতটা দক্ষ এবং সাংগঠনিক সেটার প্রমাণ বিজয় দিবসের দিনেই পাওয়া গেছে। যারা একটি জাতীয় দিবস পালনে কর্মসূচি নিতে না পারে তারা দলের জন্য রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে কি ভূমিকা রাখবে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তৃনমূলের নেতাকর্মীরা। এ বিষয়ে এখনই কেন্দ্রীয়ভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা জরুরী বলেও মনে করেন তারা।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন