ই-পেপার

জনবল সংকটে কাঙ্খিত সেবা দিতে পারছে না কলাপাড়া ফায়ার ষ্টেশন

এ.এম মিজানুর রহমান বুলেট, কলাপাড়া | আপডেট: January 2, 2022

পটুয়াখালী’র কলাপাড়ায় ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনটি পর্যাপ্ত জনবলের অভাবে কাঙ্খিত সেবা রঞ্চিত এলাকাবাসী। ২টি থানা, ২টি পৌরশহর, পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা, পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র, পায়রা সমুদ্র বন্দর সম্বলিত ব্যাপক অধিক্ষেত্র সম্পন্ন এলাকায় সি গ্রেডের এ ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনটি জনসাধারনের জীবন ও সম্পদ রক্ষায় সেরকম কার্যকর কোন ভূমিকা রাখতে পারছেনা এ দাবী স্থানীয়দের।

কলাপাড়া ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের তথ্য সূত্রে জানা যায়, কলাপাড়ায় সি গ্রেডের এ ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনটি স্থাপিত হয় ২০১৩ সালে। এ ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনে রয়েছে ১জন ষ্টেশন অফিসার, ১জন টিম লিডার, ২ জন ড্রাইভার। এখানে ফায়ার ফাইটারের পোষ্ট ১০টি কিন্তু ফাইটার রয়েছে ৮জন। এরফলে সি গ্রেডের এ ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনটি ব্যাপক অধিক্ষেত্র সম্পন্ন এ এলাকায় কাঙ্খিত সেবা দিতে পারছেনা। এছাড়া ষ্টেশনটিতে রয়েছে গাড়ী সংকট, আবাসন সংকট, জরাজীর্ন ষ্টেশন ভবন, ব্যবহার অনুপযোগী শৌচাগার।

সম্প্রতি শহরের পার্শবর্তী নীলগঞ্জ ইউনিয়নের একটি বাজারসহ কুয়াকাটা পৌর এলাকায় অগ্নি কান্ডের ঘটনায় স্থানীয় ব্যবসায়ীরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এতে কলাপাড়া ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের ফায়ার ফাইটারদের পেশাগত দায়িত্ব পালন, দক্ষতা ও বিলম্বে দুর্ঘটনা স্থলে পৌঁছানো নিয়ে বিক্ষুব্দ হয়ে ওঠে স্থানীয়রা। পরবর্তীতে স্থানীয় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে।

কলাপাড়া ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের ষ্টেশন অফিসার মো: ইলিয়াস হোসেন গনমাধ্যমকে বলেন, বিশাল অধিক্ষেত্র এলাকা বিবেচনায় জনবল ও গাড়ীর অপর্যাপ্ততা, ষ্টেশন ভবনটি অনেকটাই জরাজীর্ন ও পুরোনো হয়ে গেছে, এছাড়াও আবাসন সংকটের পাশাপাশি শৌচাগারটিও ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তাই ব্যাপক জনবহুল এ এলাকার পরিধী বিবেচনায় এখানে ’এ’ অথবা ’বি’ গ্রেডের ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশন অত্যন্ত জরুরী ও অত্যাবশকীয় হয়ে পড়েছে বলে তিনি জানান।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন